হাওরাঞ্চলে দুর্যোগে কৃষকদের পাশে থাকার আশ্বাস সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রীর

অথর
নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :৮ এপ্রিল ২০২১, ৮:০৮ পূর্বাহ্ণ
হাওরাঞ্চলে দুর্যোগে কৃষকদের পাশে থাকার আশ্বাস সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রীর

নেত্রকোনার হাওরাঞ্চলসহ বিভিন্ন উপজেলায় হঠাৎ গরম হাওয়ায় পুড়ে গেছে নতুন গজানো ধানের শীষ এবং বিবর্ণ হয়ে গেছে পাতা। ভেঙে গেছে হাজারো কৃষকের স্বপ্ন। দিশেহারা হয়ে পড়েছে দরিদ্র কৃষকরা। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে ক্ষতিগ্রস্ত মদন ও খালিয়াজুরীর বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেছেন নেত্রকোনা-২ (সদর ও বারহাট্টা) আসনের সংসদ সদস্য ও সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধা আশরাফ আলী খান খসরু।

এ সময় প্রতিমন্ত্রী ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় কৃষকদের ঘুরে দাঁড়াতে কৃষিঋণসহ সরকারি প্রণোদনার আশ্বাসও দিয়েছেন।

অকাল বন্যা ও খড়া থেকে শুরু করে প্রতিনিয়ত প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলা করতে হয় হাওরবাসীকে। সম্প্রতি ফসলের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া গরম দমকা হাওয়ায় নষ্ট হয়ে গেছে বোরো ধানের নতুন গজানো শীষ। এই দুর্যোগের কারণ হিসেবে হাওরের পরিবেশ বিপন্ন করে গাছপালা কেটে ফেলাকেও দায়ী করেছেন প্রতিমন্ত্রী। সেই সঙ্গে অগামী দিনে এ ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলায় কী ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া যায়, তা নিয়ে কৃষি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে কথা বলে সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথাও জানান প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু।

এ সময় প্রতিমন্ত্রী আরও জানান, বর্তমান সরকার কৃষির উন্নয়নে নানা যুগান্তকারী উদ্যোগ গ্রহণের ফলে দেশের কৃষিতে বিপ্লব ঘটেছে। এবার সব উপজেলাতেই বোরো ধানের ভালো ফলন হয়েছিল। কিন্তু হঠাৎ গরম বাতাসে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে স্থানীয় কৃষকরা। এমন দুর্যোগ আগে কখনো দেখেননি কেউ। ধান গবেষকরা আসছেন, পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। সামনের দিনে কৃষকদের ঘুরে দাঁড়াতে কৃষিঋণসহ সরকারি প্রণোদনার আশ্বাসও দিয়েছেন তিনি।

হাওরাঞ্চল পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এ সময় প্রতিমন্ত্রীর সফর সঙ্গী হিসেবে ছিলেন জেলা কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগের উপপরিচালক কৃষিবিদ মো. হাবিবুর রহমান, মদন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বুলবুল আহমেদ, খালিয়াজুরীর ইউএনও এইচ এম আরিফুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের কৃষিবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট দিপক ধর গুপ্ত, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আতাউর রহমান মানিক এবং জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তাসহ ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা।

জানা গেছে, চলতি সপ্তাহেই হাওরের একমাত্র ফসল বোরো ধান কাটা উৎসব শুরু হওয়ার কথা থাকলেও গত রোববার সন্ধ্যায় হঠাৎ নেত্রকোনার হাওরাঞ্চলের ওপর দিয়ে বয়ে যায় পচণ্ড গরম হাওয়া। এ সময় প্রায় ঘণ্টাব্যাপী দমকা বাতাসে উঠতি ফসলের নতুন গজানো ধানের শীষ শুকিয়ে বিবর্ণ হয়ে যাওয়ায় চরম ক্ষতির মুখে পড়েছেন কৃষকরা। স্থানীয়রা বলছে, এমন প্রাকৃতিক দুর্যোগ আগে কখনো দেখেনি কেউ। এমন অবস্থায় চরম দুশ্চিন্তায় দিন কাটছে চাষিদের।

মদন-মোহনগঞ্জ ও খালিয়াজুরীসহ বেশ কটি উপজেলার ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া হঠাৎ গরম দমকা হাওয়ায় নষ্ট হয়ে গেছে প্রায় ২১ হাজার হেক্টর বোরো ধানের নতুন গজানো শীষ। এতে অনেকটাই দিশেহারা হয়ে পড়েছেন প্রায় ৪০ হাজারেরও বেশি কৃষক।

তবে স্থানীয় আওয়ামী লীগ দুর্যোগে কৃষকদের পাশে সার্বক্ষণিক থাকবে বলে জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের কৃষিবিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট দিপক ধর গুপ্ত।

এ বছর নেত্রকোনায় এক লাখ ৮৫ হাজার ২৫০ হেক্টর জমিতে বোরো ধানের আবাদ হয়েছে। এর মধ্যে জেলার হাওরাঞ্চলেই আবাদ হয়েছে ৪০ হাজার ৯৬০ হেক্টর জমি। প্রাকৃতিক এই দুর্যোগে ও ক্ষতি পুষিয়ে নিতে কৃষকদের সহায়তায় পাশে থাকবে সরকার এমনটাই প্রত্যাশা স্থানীয় কৃষকদের।

সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।