সাফল্যের ১০ বছর – U.S. Bangla News




সাফল্যের ১০ বছর

ইউ এস বাংলা নিউজ ডেক্স:-
আপডেটঃ ২৩ মার্চ, ২০২৩ | ৭:০৭
অনেকের মতো হুট করে এসে চমক লাগিয়ে আবার ধপ করে নিভে যাননি সাফা কবির। আবার হঠাৎ করে তারকা বনেও যাননি তিনি। নানা চড়াই-উতরাই পেরিয়ে নিজেকে এতদূর নিয়ে এসেছেন একান্তই নিজের পায়ে এবং আপন শক্তিতে। টেলিভিশন নাটকে এখন তিনি চাহিদাসম্পন্ন অভিনেত্রীদের একজন। তবে অভিনয়ের শুরুতে তিনি লাইট-ক্যামেরার সামনে দাঁড়িয়েছিলেন ছোট্ট একটি চরিত্র নিয়ে। তাও আবার অভিনেত্রী হওয়ার দৃঢ় ইচ্ছে নিয়ে নয়, অনেকটা আড়মোড়া নিয়েই ২০১৩ সালে প্রথম অভিনয় করেন আদনান আল রাজীব পরিচালিত 'অ্যাট এইটিন' টেলি ছবিতে। এরপরের অধ্যায় শুধুই এগিয়ে যাওয়া। সাফা কবির বলেন, 'টিভি পর্দায় কাজ করার তেমন ইচ্ছাও ছিল না। নাটকের ছোট একটি চরিত্র দিয়ে মানুষ আমাকে চিনতে

শুরু করেন। পরে ধারাবাহিক নাটক ও মডেলিং করেছি।' গল্পের প্রধান নায়িকা হয়ে এখন প্রতিনিয়ত অভিনয় করে যাচ্ছেন সাফা কবির। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তার ব্যস্ততাও বেড়েছে। এই ব্যস্ত হয়ে ওঠার পেছনে তাকে শ্রম দিতে হয়েছে। অধ্যবসায়, দৃঢ় মনোবলের পাশাপাশি সময়কে কাজে লাগিয়েছেন এই তারকা। তিনি বলেন, 'একটু একটু করে এগিয়েছি। তখন সিনিয়রদের দেখে ইচ্ছা হতো, কবে আমি একক নাটকের প্রধান চরিত্রে অভিনয় করব। সে জন্য অনেক সময় গল্পে ছাড় দিয়েও কাজ করেছি। আবার নিয়মিত কাজের মধ্যে যখন কোনো পরিচালক বলছেন, 'তোমাকে ভেবেই গল্পটা লেখা,' তখন মনে হয়েছে নিজের একটা জায়গা হচ্ছে। এই পুরো জার্নি অনেক কঠিন ছিল।' দেখতে দেখতে ১০ বছর কেটে গেলেও

সময়টা একেবারে কম নয়। অনেকগুলো দিন-মাসের বিশাল একটা সময়। এই দীর্ঘ সময়ে উত্থান-পতন, চাওয়া-পাওয়া, একটা হিসাব থেকে যায়। বিশেষ করে শোবিজ তারকাদের বেলায় তো বটেই। এ নিয়ে সাফা কবির বলেন, 'ক্যারিয়ারে তো কিছুটা ওঠানামা থাকবেই। কিন্তু কখনোই মনে হয়নি অভিনয় ছেড়ে দিই। আমি হাল ছেড়ে দেওয়ার মেয়ে নই। সমস্যার সমাধান নিয়ে ভাবতাম। অনেক কষ্ট ও ধৈর্য ধরতে হয়েছে। কাজ করতে গিয়ে ভুল করে করেই শিখেছি। দীর্ঘ ১০ বছর ভুল আর শেখার মধ্যেই ছিলাম। আমি শিখে যেতে চাই। কিন্তু চেষ্টার মধ্যে দর্শক আমাকে যে গ্রহণ করেছেন, এটাই শান্তির জায়গা ছিল। এটাই আমার বড় প্রাপ্তি। তবে অপ্রাপ্তি অনেক আছে। অপ্রাপ্তি থাকলে সেটা

জয় করার জন্য লড়াই করা যায়। কিছু অপ্রাপ্তি থাকা ভালো। শুধু এটুকু বলব, এমন কিছু করতে চাই, মানুষ যেন আমাকে মনে রাখেন।' এক সময় আমাদের নাটকের অনেক সুনাম থাকলেও ধীরে ধীরে তা হারাতে বসে। গল্প নির্ভর নাটক কমতে থাকে। কমেডি ও রোমান্টিক গল্পের নাটকেই ঘুরপাক খেতে থাকে টিভি নাটক। অনেকের মতো সাফা কবিরও সেই তালে চলতে থাকেন। বিষয়টি তার খেয়ালে আসে। তাই নিজেকে ভাঙতে মাঝ সময়ে বিরতি নিয়ে আবার ফিরেন নতুন ছন্দে। এ প্রসংগে এই অভিনেত্রী বলেন, 'আমার কাছে মনে হচ্ছিল, একই রকম রোমান্টিক চরিত্রগুলো বেশি হয়ে যাচ্ছে। যে কারণে একঘেয়ে কাজগুলো থেকে দূরে সরে যাই। কিছুটা বিষণ্ন ছিলাম। অপছন্দের গল্পে

কাজ করিনি। নিজেকে সময় দিয়েছি। এর মধ্যে হঠাৎ লক্ষ্য করি, দর্শক আমার কাজ নিয়ে ফেসবুকে মন্তব্য করছেন। তারা আসলে আমার কাজ দেখতে চান।' দর্শকের পছন্দের অভিনেত্রী হয়েই নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন সাফা কবির। নতুন নতুন গল্পে বৈচিত্র্যময় চরিত্রে নিজেকে হাজির করছেন। এমনই নানা চরিত্রে নিজেকে মেলে ধরলেও বছরের বিশেষ বিশেষ সময়ে ব্যস্ততা বেড়ে যায় সাফার। সামনে ঈদ। বরাবরের মতো এবারও ঈদে চমক নিয়ে ফিরবেন সাফা। ঈদ নাটকের প্রসঙ্গে এই অভিনেত্রী বলেন, 'বিশেষ দিবসগুলোকে ঘিরে সব সময়ই একটু ব্যস্ততা বেশি যায় সবার। সেদিক থেকে আলহামদুলিলস্নাহ আমারও ব্যস্ততা অনেক বেড়েছে। সবাই বলছিল, বেশি বেশি কাজ কর। এখন মনে হচ্ছে সত্যি সত্যি ব্যস্ততা অনেক

গুণ বেড়ে গিয়েছে আমার। এর মধ্যে ঈদের জন্য বেশ কিছু নাটকের কাজ করেছি, ওটিটিরও করেছি। হাতে এখনো কিছু সময় আছে এর মধ্যে আরও কিছু কাজ করা হবে। আর যেহেতু সামনে রামজান মাস, এই মাসে দুটো টিভি শো করব ইফতারি নিয়ে। এর আগে অনেকবার বলা হলেও সময়ের জন্য করা হয়ে উঠেনি। এবার সেটা করছি।' অভিনয় শিল্পীদের অনেকে বাঁধাধরা চরিত্রে নিজেকে আবদ্ধ করে ফেলেছেন। একই চরিত্রে বারবার দেখা মেলে কোনো কোনো অভিনয়শিল্পীর। হয়তো এ ধরনের চরিত্রে তারা নিজেকে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন। পরিচালকরাও তাদের তেমন চরিত্রের জন্যই ডাকেন। কিন্তু ব্যতিক্রম সাফা কবির। চরিত্র নিয়ে তিনি বলেন, 'সব ধরনের চরিত্রে অভিনয় করতে চাই। চরিত্র নিয়ে আমি

খুব ওপেন। যেখানে গল্প আছে, যেখানে আমার অভিনয়ের সুযোগ আছে, যেখানে অভিনয় করে আনন্দ পাব, তেমন চরিত্রে বেশি বেশি করতে চাই। একই রকম চরিত্রে কাজ করতে চাই না।' টেলিভিশনের সব তারকাই এখন ওটিটিমুখী। এই পস্নাটফর্মে তাদের ব্যস্ততাও বেড়েছে অনেক। সাফা কবিরও এই মাধ্যমে সরব রয়েছেন। এই মাধ্যমের ব্যস্ততা নিয়ে সাফা বলেন, 'আমি ওটিটির বেশ কিছু কাজ করেছি। এছাড়াও দেশীয় এবং দেশের বাইরের পস্নাটফর্মে কিছু কাজ নিয়ে কথাবার্তা চলছে। এখানে প্রাথমিক পর্যায়ে আছে, চূড়ান্ত কিছু হয়নি। আমি খুব ধৈর্যশীল মানুষ, কোনো কিছু নিয়ে তাড়াহুড়ো নেই আমার। বিঞ্জের জন্য একটা ওয়েব ফিল্মের কাজ শেষ করেছি যেটার নাম 'কুহেলিকা'। খুব সম্ভবত এটা ঈদে আসবে।

আপাতত এই কাজটা নিয়ে অনেক এক্সাইটেড।'
ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
ঢাকায় মার্কিন প্রতিনিধিদল, নতুন প্রেক্ষাপটে নানা বিষয়ে আলোচনা শুরু সংরক্ষিত আসনে সংসদ সদস্যদের নামের গেজেট প্রকাশ রোববার নাভালনিকে গোপনে সমাহিত করতে পরিবারকে ‘চাপ’! আমার জীবনটা এলোমেলো হয়ে গেল: শেহতাজ পেঁয়াজের দাম কমে আসবে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে টিকিটের চাহিদা ২০০ গুণ বেশি পিলখানা ট্র্যাজেডি রোববার সামরিক কবরস্থানে শ্রদ্ধা জানাবে বিএনপি ইউক্রেন যুদ্ধের দ্বিতীয় বার্ষিকীতে কিয়েভে পশ্চিমা নেতারা বাজার সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে সরকার: পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাগানে পড়েছিল দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ৫০০ কেজি ওজনের বোমা যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক শেষে যা বললেন আমির খসরু সাবেক স্ত্রীকে দেয়া চিঠিতে যা লিখেছেন আলভেজ রাজধানীতে কারামুক্ত নেতাদের নিয়ে ছাত্রদলের বিক্ষোভ খেলার মাঠে মেলা উচ্ছেদ করে মালামাল নিলামে বিক্রি বাংলাদেশে ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ রপ্তানি করবে ভারত মজুতদারদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লক ইট তৈরিতে প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করবে সরকার: পরিবেশমন্ত্রী ফিলিস্তিনে ইয়াসির আরাফাতের বাড়ি গুঁড়িয়ে দিল ইসরাইল দ্রব্যমূল্য মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রাখা সম্ভব: দীপু মনি সফরে আসা প্রতিনিধিদলকে স্বাগত জানাল ঢাকার মার্কিন দূতাবাস