‘সহস্রাধিক নেতাকর্মী হত্যা করেও আন্দোলন দমাতে পারেনি আ.লীগ’ – U.S. Bangla News




‘সহস্রাধিক নেতাকর্মী হত্যা করেও আন্দোলন দমাতে পারেনি আ.লীগ’

ইউ এস বাংলা নিউজ ডেক্স:-
আপডেটঃ ১৪ জানুয়ারি, ২০২৩ | ১০:২০
বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বর্তমান ফ্যাসিস্ট সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে বিএনপির প্রায় ৪০ লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়েছে। ৬০০ নেতাকর্মীকে গুম করেছে। সহস্রাধিক নেতাকর্মীকে হত্যা করেছে। এখনো কয়েক হাজার নেতাকর্মী জেলে আছেন। শনিবার বিকালে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় নিহত তিন নেতার পরিবারের হাতে আর্থিক সহায়তা তুলে দেন বিএনপি মহাসচিব। মির্জা ফখরুল বলেন, অনেক শীর্ষ নেতাও জেলে আছেন। কিন্তু কারো মধ্যে হতাশা দেখিনি, সবাই উজ্জীবিত। এমন অবস্থার পরও আমরা কেউ পিছিয়ে নেই। আরও উজ্জীবিত হয়ে এগিয়ে যাচ্ছি। যত অত্যাচার আসুক, নির্যাতন-নিপীড়ন আসুক আমরা শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মধ্য দিয়ে

বর্তমান ভয়াবহ দানব সরকারকে পরাজিত করব। সত্যিকার অর্থে একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করব। ৭ ডিসেম্বর নয়াপল্টনে সংঘর্ষের ঘটনায় নিহত হন পল্লবী থানার ৫ নম্বর ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেক দলের যুগ্ম সম্পাদক মকবুল হোসেন। তার স্ত্রী হালিমা আক্তার বর্ষা মেয়ে মিথিলা আক্তার মারিয়াকে নিয়ে বক্তব্য দেওয়ার সময় কান্নায় ভেঙে পড়েন। এ সময় উপস্থিত নেতাকর্মীরাও আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়েন। মিথিলা আক্তার বলেন, আমার স্বামী ভালো মানুষ। ঘর থেকে বের হয়ে লাশ হয়ে ফিরেছে। তাকে নির্মমভাবে হত্যা করা করা হয়েছে। আমি এর বিচার চাই। তবে জানি এই সরকারের সময় আমার স্বামী হত্যার কোনো বিচার পাব না। বিএনপি ক্ষমতায় গেলে হত্যাকারীদের বিচার করতে হবে। গত ২৪

ডিসেম্বর গণমিছিলকে কেন্দ্র করে পঞ্চগড়ে সংঘর্ষে নিহত হন বোদা উপজেলা ময়দানদীঘি বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক আব্দুর রশিদ আরেফিন। তার স্ত্রী শিরিন আক্তার ছেলে মোহাম্মদ আব্দুল আল মাহিকে দেখিয়ে বলেন, এতটুকু ছেলেকে যারা এতিম করেছে এর বিচার চাই। গুলিতে নিহত বাগেরহাট জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক নুরে আলম ভূইয়া তানুর স্ত্রী কানিজ ফাতেমা বলেন, আমার স্বামী আওয়ামী লীগ সন্ত্রাসীদের বর্বরতার শিকার। বাসা থেকে ডেকে নিয়ে তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। এ মামলার বাদী আমি নিজেই। তাই ঘর থেকে বের হতে এখন ভয় পাই। ছেলের শোকে আমার শ্বশুর মারা গেছেন, শাশুড়িও অনেক অসুস্থ। বিএনপি ক্ষমতায় আসলে আমার স্বামীর সুষ্ঠু বিচার

যেন আমি পাই। এ সময় সঙ্গে তার মেয়ে তানজিনা তাশমিও ছিলেন। তাদের বক্তব্যের সময় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ উপস্থিত নেতাদেরও কাঁদতে দেখা যায়। মির্জা ফখরুল বলেন, যারা প্রাণ দিয়েছেন তারা একটি আদর্শ ও লক্ষের জন্য প্রাণ দিয়েছেন। নিজের দেশকে মুক্ত ও একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করার জন্য তারা প্রাণ দিয়েছেন। গত ২২ আগস্ট থেকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নেতৃত্বে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলন শুরু করেছি। এখন পর্যন্ত আমাদের ১৫ জন ভাই শহিদ হয়েছেন। তারা পুলিশের গুলিতে ও আওয়ামী লীগ সন্ত্রাসীদের হামলায় শহিদ হয়েছেন। এই ভয়াবহ ফ্যাসিবাদী অনির্বাচিত সরকার ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য অত্যাচার-নির্যাতন-নিপীড়ন চালিয়ে যাচ্ছে। তারা বীরের মতো শহিদ

হয়েছেন। কেউ পেছনে পালাতে গিয়ে নিহত হননি, শহিদ হননি। তারা বুক পেতে দিয়ে চলে গেছেন। তারা দেশের জন্য যে আত্মত্যাগ করে গেছেন তা গণতান্ত্রিক আন্দোলনের ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। এর মধ্যে দিয়ে আমাদের নেতাকর্মীরা আরও ত্যাগ স্বীকারের জন্য শপথ গ্রহণ করেছেন। তিনি বলেন, যুগে যুগে বড় কিছু অর্জন করতে গেলে এই আত্মত্যাগ করতে হয়। একাত্তরে আমরা যুদ্ধ করেছিলাম তখন লাখ লাখ মানুষ প্রাণ দিয়েছেন। তখন অনেক পরিবার অসহায় হয়ে পড়েছিল। আজকেও একটা দানবীয় শক্তি আমাদের সব অর্জনগুলোকে ধ্বংস করে দিয়েছে। আমরা কেউ শান্তিতে নেই। এ দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেতা, দেশের মানুষ যাকে মা বলে ডাকেন সেই নেত্রী খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে

মিখ্যা মামলা দিয়ে বছরের পর বছর বন্দি করে রেখেছে। যারা কথায় উজ্জীবিত হয়ে নতুন সংগ্রাম শুরু করেছি, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে নেমেছি, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান আজকে সুদুর ৮ হাজার মাইল দূরে অবস্থান করছেন। এই গণতান্ত্রিক আন্দোলকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য প্রতিমুহূর্তে তিনি কাজ করছেন। এ সময় গুম-খুন ও নির্যাতনের শিকার প্রতিটি নেতার পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর জন্য ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানকে ধন্যবাদ জানান বিএনপি মহাসচিব। তিনি বলেন, প্রতিটি পরিবারের পাশে বিএনপি সব সময় পাশে থাকবে। বিএনপির ভারপ্রাপ্ত দপ্তর সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্সের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, চেয়ারপার্সন উপদেষ্টা

আমানউল্লাহ আমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুল হাবিব দুলু, পঞ্চগড় জেলার সদস্য সচিব ফরহাদ হোসেন আজাদ, ঢাকা মহানগর উত্তরের সদস্য সচিব আমিনুল হক, বিএনপি চেয়ারপারসনের একান্ত সচিব এবিএম আবদুস সাত্তার, বিএনপির মিডিয়া সেলের সদস্য শায়রুল কবির খান, স্বেচ্ছাসেবক দলের কেন্দ্রীয় সভাপতি এসএম জিলানী, সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহসান, সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসিন আলী প্রমুখ।
ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
কোটা আন্দোলনে রেসিডেন্সিয়াল কলেজ শিক্ষার্থী ফারহান নিহত বাইডেনকে সরে দাঁড়ানোর জন্য চাপ শুমার, পেলোসির সংঘাত ও সহিংসতা কাম্য নয়: চীনা রাষ্ট্রদূত শিক্ষার্থীদের দাবি যৌক্তিক, আলোচনায় সমাধান মিলবে: আরেফিন সিদ্দিক স্বামী অন্য নারীর সঙ্গী, বিচ্ছেদের ঘোষণা দিলেন দুবাইয়ের রাজকুমারী এবার কোটা আন্দোলন নিয়ে সরব মেহজাবীন, যা বললেন মাদারীপুরে ত্রিমুখী সংঘর্ষে লেকের পানিতে পড়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু ২১, ২৩ ও ২৫ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে পাশে দাঁড়ালেন কলকাতার নায়িকা সোহেল-নিরব-টুকুসহ বিএনপির ৫০০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে পুলিশের মামলা ছাত্র আন্দোলনের প্রতি পূর্ণ সমর্থন জামায়াতের বিএনপির কার্যালয়ে ফের ঝুলছে তালা, সতর্ক অবস্থানে পুলিশ আন্দোলনত শিক্ষার্থীরা মুক্তির সন্তান, স্বপ্নের বিপ্লব গড়ে তুলছে: রিজভী শিক্ষার্থীদের পরিবর্তে আজ মাঠে নেমেছে বিএনপি-জামায়াত: কাদের ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ নিয়ে যা বললেন ওবায়দুল কাদের যুক্তরাষ্ট্র আ.লীগ সভাপতি ড. সিদ্দিকের বাংলাদেশ গমন : ডা:মাসুদ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আজ সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ দুবাইয়ের রাজকন্যা হয়েও যে কারণে স্বামীকে তালাক দিলেন শেখা মাহরা শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে বেআইনি শক্তি প্রয়োগ করা হয়েছে হানিফ ফ্লাইওভারে গুলিবিদ্ধ হয়ে একজন নিহত