সরকারের অস্তিত্ব সংকটাপন্ন: মির্জা ফখরুল – U.S. Bangla News




সরকারের অস্তিত্ব সংকটাপন্ন: মির্জা ফখরুল

ইউ এস বাংলা নিউজ ডেক্স:-
আপডেটঃ ২৭ মার্চ, ২০২৩ | ৭:৩২
সরকারের অস্তিত্ব এতোটাই সংকটাপন্ন উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ক্ষমতায় টিকে থাকতে তারা দেশের জনগণসহ বিএনপি ও বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদের ওপর মরণকামড় দিতে শুরু করেছে। আজ রোববার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল এ মন্তব্য করেন। বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব বলেন, দেশে আইনের শাসন না থাকার কারণে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের মাত্রা এখন আরও ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেছে। পুলিশ আইনের রক্ষক অথচ তারাই আইন ভঙ্গের মাধ্যমে বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের ওপর জুলুম চালাচ্ছে। দুর্গাপুর উপজেলা ও পৌর বিএনপিসহ সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন স্বাধীনতা দিবসের মতো একটি জাতীয় অনুষ্ঠান পালন করতে গিয়ে র‌্যালিতে পুলিশের বাধা, টিয়ারশেল, গুলি ও রাবার

বুলেট নিক্ষেপে ৬০ জনের অধিক নেতাকর্মীকে গুলিবিদ্ধ এবং ৮ জন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তারের ঘটনা প্রমাণ করে বাংলাদেশ বর্তমানে সন্ত্রাসের অভয়ারণ্য। মির্জা ফখরুল বলেন, একটি গণতান্ত্রিক দেশে এখন বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলোর সভা-সমাবেশের ওপরই কেবল বাধা দেওয়া হচ্ছে না, বরং যে কোনো জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠানের ওপরও ন্যাক্কারজনক হামলা চালানো হচ্ছে। বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলায় কেবল আওয়ামী সন্ত্রাসীরাই নয়, আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীও এ ধরণের হামলায় পিছিয়ে নেই। তিনি আরও বলেন, দুর্গাপুর উপজেলা এবং পৌর বিএনপিসহ অঙ্গ ও এর সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে আয়োজিত মহান স্বাধীনতা দিবসের র‌্যালিতে পুলিশ কর্তৃক হামলা, নেত্রকোণা জেলা বিএনপি’র সাবেক সদস্য ও দুর্গাপুর উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ইমাম হাসান আবু চান চেয়ারম্যান (গুলিবিদ্ধ

অবস্থায়), দুর্গাপুর পৌর বিএনপির আহবায়ক আতাউর রহমান ফরিদ আলী, পৌর যুবদলের আহবায়ক আবু সিদ্দিক রুক্কু (গুলিবিদ্ধ অবস্থায়), গাঁওকান্দিয়া ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহবায়ক শাহ আলমসহ ৮ জন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার এবং দুর্গাপুর উপজেলা বিএনপির আহবায়ক জহিরুল আলম ভুঁইয়া, দুর্গাপুর পৌর বিএনপির সদস্য সচিব হারেজ গণি, দুর্গাপুর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক জামাল উদ্দিন মাস্টার, পৌর যুবদলের সদস্য সচিব সম্রাট গণি, দুর্গাপুর উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক শিশির আহমেদ এবং উপজেলা বিএনপি নেতা বাদশা মিয়াসহ ৬০ জনের অধিক নেতাকর্মীকে গুলিবিদ্ধ করা ও নেতাকর্মীদের তিন শতাধিক মোটরসাইকেল নিয়ে যাওয়ার ঘটনা তারই প্রমাণ। সবমিলিয়ে বর্তমান শাসকগোষ্ঠী এখন ফ্যাসিবাদী কায়দায় দেশ শাসন করছে। ফখরুল বলেন, দমন-পীড়ন চালিয়ে জনগণের

মৌলিক অধিকার হরণ এবং বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদের ওপর ক্রমাগত জুলুম ও রক্তপাতের বিরুদ্ধে দেশের মানুষের ঐক্যবদ্ধ হওয়া এখন খুবই জরুরি হয়ে পড়েছে। বিএনপি মহাসচিব অবিলম্বে উল্লিখিত গ্রেপ্তারকৃত নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারসহ তাদের নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি জানান। একইসঙ্গে তিনি পুলিশী গুলিবর্ষণে গুরুতর আহত নেতাকর্মীদের আশু সুস্থতা কামনা করেন।
ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
বেইলি রোডে আগুন: সন্দেহজনক ২ পাইপলাইন গাজায় বিমান থেকে ত্রাণ ফেলল যুক্তরাষ্ট্র ঢাকার ৯০ শতাংশ ভবনে নকশার বিচ্যুতি সড়ক পরিবহণ আইনের আওতায় মালিকদের আনার প্রস্তাব ডিসিদের শনাক্তের পরও মিনহাজের লাশ পেতে ভোগান্তি দুয়ারে দুয়ারে ঘুরছেন ৬১ হাজার শিক্ষক-কর্মচারী সংগ্রামের পূর্ণাঙ্গ রূপরেখা স্বাধীনতার ইশতেহারে কাস্টমসের হয়রানিতে আমদানি শূন্য বইমেলার শেষ দিনে ভিড় বিক্রি দুই-ই কম পাকিস্তানে আজ প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন, ৯ মার্চ প্রেসিডেন্ট ভোজ্যতেলের সাত রিফাইনারি পর্যবেক্ষণে: ভোক্তার ডিজি ঢাকা বার আইনজীবী ফোরামের ভোটের ফলাফল বাতিলের দাবি গণতন্ত্র মঞ্চ ও ১২ দলীয় জোটের সঙ্গে মির্জা ফখরুলের বৈঠক সংসদে সাবেক গণপূর্তমন্ত্রী ১৩০০ ভবন চিহ্নিত করা হলেও ভাঙা সম্ভব হয়নি বেইলি রোডে অগ্নিকা­ণ্ড: ভবনের ম্যানেজারসহ চারজন রিমান্ডে জার্মানির বিরুদ্ধে নিকারাগুয়ার মামলা ইউক্রেনে ‘আত্মহত্যার বাঁশিওয়ালা’ গাজায় গণহত্যার পক্ষে অবস্থান নিয়েছে বিএনপি-জামায়াত: পররাষ্ট্রমন্ত্রী শোকের শহরে আনন্দ মিছিল করল ছাত্রদল ‘আমি হয়তো আর দুই বছর খেলব’