শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা: অপরাধীর বিচার নিশ্চিত করতে হবে

অথর
নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :২৯ জুন ২০২২, ৫:০৭ পূর্বাহ্ণ
শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা: অপরাধীর বিচার নিশ্চিত করতে হবে

পথপ্রদর্শক শিক্ষককে যে শিক্ষার্থী শারীরিকভাবে আঘাত করতে পারে, তার পক্ষে যে কোনো নৃশংস কর্মকাণ্ড বা অপরাধ ঘটানো সম্ভব। ঢাকার আশুলিয়ায় উৎপল কুমার সরকার নামে এক কলেজ শিক্ষককে ক্রিকেট স্টাম্প দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছিল নিজ প্রতিষ্ঠানের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী আশরাফুল ইসলাম জিতু। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান ওই শিক্ষক।

সমাজে নৈতিক মূল্যবোধের এতটাই অবক্ষয় হয়েছে যে, এমন নৃশংস ও লজ্জাজনক খবর আমাদের জানতে হলো। শিক্ষককে চরম অপমানের ঘটনা দেশে এটাই প্রথম নয়, এর আগে আরও বেশকিছু লজ্জাজনক ঘটনা ঘটেছে। সেসব ঘটনায় সংশ্লিষ্ট অপরাধীদের বিরুদ্ধে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে কি? শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার প্রতিটি ঘটনার সঙ্গেই স্থানীয় প্রভাবশালীদের যোগসূত্র থাকার অভিযোগ রয়েছে।

আশুলিয়ার চিত্রশাইলে হাজী ইউনুস আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী আশরাফুল ইসলাম জিতুও স্থানীয় এক প্রভাবশালীর আত্মীয়। নিহত শিক্ষক এ প্রতিষ্ঠানের কলেজ শাখার রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক ছিলেন। এছাড়া কলেজের শৃঙ্খলা কমিটির সভাপতি ছিলেন তিনি। এক ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করায় সম্প্রতি জিতুকে শাসন করেছিলেন উৎপল কুমার সরকার।

ধারণা করা হচ্ছে, সেই ক্ষোভ থেকেই ওই শিক্ষকের ওপর হামলা করে জিতু। প্রভাবশালীর আত্মীয় হওয়ার কারণেই কি এমন নৃশংস কাজ করার সাহস পেয়েছে সে? নিজ কর্মস্থলে প্রকাশ্যে ওই শিক্ষককে এলোপাতাড়ি পিটিয়েছে জিতু। তার এই কর্মকাণ্ডের নেপথ্যের ইন্ধনদাতাকে খুঁজে বের করা দরকার।

সমাজে জিতুর মতো যত শিক্ষার্থী আছে, তাদের চিহ্নিত করতে হবে। তা না হলে এসব শিক্ষার্থীর কারণে সমাজে বেপরোয়া, ঘৃণ্য ও নৃশংস ঘটনা ঘটার আশঙ্কা থেকেই যাবে। আশুলিয়ায় শিক্ষক হত্যার ঘটনাটিকে যথাযথ গুরুত্ব দিয়ে অপরাধীর দ্রুত বিচার করতে হবে। একজন শিক্ষকের প্রভাব শিক্ষার্থীর জীবনে সারা জীবন ধরে বহমান থাকে। এজন্যই শিক্ষকের মর্যাদা পিতামাতার মর্যাদার সমান বলে বিবেচনা করা হয়।

বলা হয়ে থাকে, সারা জীবন শিক্ষককে সম্মান জানানোর পরও তার ঋণ শোধ করা যায় না। শ্রদ্ধাভাজন শিক্ষককে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় সমাজদেহের অসুস্থতাই প্রকাশ পায়। এ কঠিন ব্যাধি সারাতে আইনের সুষ্ঠু প্রয়োগের পাশাপাশি সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।