মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে অনুমোদন দুই ক্রয়প্রস্তাবে চিনির দামের পার্থক্য দ্বিগুণ – U.S. Bangla News




মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে অনুমোদন দুই ক্রয়প্রস্তাবে চিনির দামের পার্থক্য দ্বিগুণ

ইউ এস বাংলা নিউজ ডেক্স:-
আপডেটঃ ১০ মার্চ, ২০২৩ | ১০:০৪
দুটি প্রতিষ্ঠান থেকে ২৫ হাজার টন চিনি কিনছে সরকার। তবে দেশীয় প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল করপোরেশন থেকে যে দামে চিনি কেনা হচ্ছে, সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রতিষ্ঠান গোল্ডেন উইংস জেনারেল ট্রেডিং থেকে কেনা হচ্ছে তার প্রায় অর্ধেক দামে। গতকাল বৃহস্পতিবার অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় এ দুই প্রস্তাবসহ ১২টি প্রস্তাবের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। কমিটির বৈঠক শেষে সাধারণত অর্থমন্ত্রী কিংবা মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের একজন অতিরিক্ত সচিব সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। কিন্তু গতকাল কোনো ব্রিফিং হয়নি। তবে অর্থ মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে বৈঠকের সিদ্ধান্তগুলো জানানো হয়েছে। এতে বলা হয়, ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশকে (টিসিবি) স্থানীয়ভাবে সরাসরি ক্রয়পদ্ধতিতে ১২ হাজার ৫০০ টন চিনি কেনার

অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। গ্লোবাল করপোরেশন থেকে ১৩২ কোটি ৫০ লাখ টাকায় এ চিনি কেনা হবে। এ ছাড়া সংযুক্ত আরব আমিরাতের গোল্ডেন উইংস জেনারেল ট্রেডিং থেকে একই পরিমাণ চিনি কেনার অনুমতি দেওয়া হয়েছে টিসিবিকে। আন্তর্জাতিকভাবে সরাসরি ক্রয় (ডিপিএম) পদ্ধতিতে এই চিনি কেনা হবে। এ জন্য ব্যয় হবে ৬৮ কোটি ৭৩ লাখ ৭৫ হাজার টাকা। দুই উৎস থেকে চিনি কেনায় দামে এত বেশি পার্থক্যের কারণ জানতে চাইলে টিসিবির যুগ্ম পরিচালক ও তথ্য প্রদানকারী কর্মকর্তা মো. হুমায়ুন কবির বলেন, একটি স্থানীয় ও আরেকটি আন্তর্জাতিকভাবে ক্রয় করা হচ্ছে। তাই দামের পার্থক্য থাকাটাই স্বাভাবিক। তা ছাড়া ভিন্ন ভিন্ন সময়ে দুটি ক্রয়প্রস্তাবের দরপত্র আহ্বান করার কারণেও দামের

পার্থক্য হয়। দুই দরপত্রে অংশগ্রহণকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে পুরো নিয়ম মেনে সর্বনিম্ন দরদাতাদেরই সরবরাহের কাজ দেওয়া হয়। সুতরাং এ ক্ষেত্রে দামের পার্থক্য থাকলেও কিছু করার থাকে না। এদিকে চলতি বছরের ১১ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় ভারতের কলকাতার শ্রীনোভা ইস্পাত থেকে সাড়ে ১২ হাজার টন চিনি কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়। আন্তর্জাতিকভাবে সরাসরি ক্রয় পদ্ধতিতে ওই চিনি কিনতে খরচ ধরা হয় ৭০ কোটি টাকা। সুইজারল্যান্ড থেকে আসছে আরও এক কার্গো এলএনজি সুইজারল্যান্ড থেকে আরও এক কার্গো বা ৩৩ লাখ ৬০ হাজার এমএমবিটিইউ (মেট্রিক মিলিয়ন ব্রিটিশ থার্মাল ইউনিট) তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস (এলএনজি) আমদানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। দেশটির টোটাল ইঞ্জিনিয়ারিং গ্যাস অ্যান্ড পাওয়ার

লিমিটেড থেকে ৬১৮ কোটি টাকায় এই এলএনজি আমদানি করবে পেট্রোবাংলা। এর আগে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি সুইস কোম্পানি ভিটল থেকে ৫৭৪ কোটি টাকা ব্যয়ে এক কার্গো বা ৩২ লাখ এমএমবিটিইউ এলএনজি আমদানির সিদ্ধান্ত হয়। প্রায় সাত মাস স্পট মার্কেট থেকে এলএনজি কেনা বন্ধ থাকার পর গত ১ ফেব্রুয়ারি তা আমদানির অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা কমিটি। এক সময় আমদনি করা এলএনজি থেকে দিনে ৮৫ কোটি ঘনফুট পর্যন্ত গ্যাস সরবরাহ হতো। করোনা-পরবর্তী সময়ে চাহিদা বাড়া এবং রাশিয়া-ইউক্রেন সংঘাতের কারণে গত বছর আন্তর্জাতিক বাজারে এলএনজির দাম বাড়তে থাকে। স্পট মার্কেটে যে এলএনজি ১০-১২ ডলারে (প্রতি এমএমবিটিইউ) কেনা হতো, তা বেড়ে ৫০ ডলার ছাড়িয়ে যায়। দাম বাড়ার কারণে

লোকসান কমাতে গত জুলাই মাস থেকে স্পট মার্কেট থেকে এলএনজি কেনা বন্ধ করে দেয় পেট্রোবাংলা। ৬০ হাজার টন ইউরিয়া কিনবে সরকার দেশ-বিদেশি দুই প্রতিষ্ঠান থেকে ৬০ হাজার টন ইউরিয়া সার কেনার প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। খরচ ধরা হয়েছে ২১২ কোটি ৯১ লাখ ২৩ হাজার ৭৮৮ টাকা। বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কোম্পানি (কাফকো) থেকে ৩০ হাজার টন ব্যাগড গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার কিনবে বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন (বিসিআইসি)। এতে ব্যয় হবে ১০৫ কোটি ৬২ লাখ টাকা। এ ছাড়া বিসিআইসির মাধ্যমে সৌদি আরবের সাবিক এগ্রি-নিউট্রিয়েন্টস কোম্পানির কাছ থেকে ৩০ হাজার টন বাল্ক গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার আমদানির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

এ ক্ষেত্রে ব্যয় ধরা হয়েছে ১০৭ কোটি ২৮ লাখ টাকা। এ ছাড়া নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের ছয় প্রকল্পের পূর্ত কাজের জন্য ৮৩০ কোটি ৯ লাখ টাকা ব্যয়ের প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) মাধ্যমে এসব প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে।
ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
উত্তেজনার মধ্যেই ইসরাইলে অর্ধশতাধিক রকেট হামলা চলিয়েছে হিজবুল্লাহ চলতি বছর ছাড়াতে পারে তাপমাত্রার রেকর্ড মধ্যরাতে অতর্কিত হামলায় ছাত্রলীগের ৪ নেতাকর্মী আহত ইরান-ইসরাইল উত্তেজনা, যে কৌশল নিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র দুই মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে দুই বন্ধু নিহত হামলার ভয়ে জরুরি বৈঠকের ডাক নেতানিয়াহুর মার্কিন ঘাঁটিতেও হামলার হুমকি ইরানের ইরান-ইসরাইল উত্তেজনা: মার্কিন বাহিনীর অবস্থান পরিবর্তন যে অজানা শূন্যতা নিয়ে কাটে প্রবাসের ঈদ আওয়ামী লীগ নেতাসহ গুলিবিদ্ধ ৩ মিয়ানমারে সংঘাত, বিস্ফোরণে কাঁপছে টেকনাফ সীমান্ত ইরানি প্রেসিডেন্টকে পাকিস্তান সফরের আমন্ত্রণ জানালেন আসিফ আলী জারদারি স্যাটেলাইট ট্যাগ লাগানো সুন্দরবনের কুমির এখন চিতলমারীতে ভূমধ্যসাগরে নৌকা ডুবে ৯ জনের মৃত্যু গরম উপেক্ষা করে কক্সবাজারে পর্যটকের ঢল অস্ট্রেলিয়ার পর ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিতে প্রস্তুত ইউরোপ ৬ রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক পেল ৮ ডিএমডি পদ্মায় গোসলে নেমে লাশ হলেন বাবা ও খালু, ছেলে নিখোঁজ ইসরাইলে কীভাবে ইরান হামলা করবে, জানাল যুক্তরাষ্ট্র কানাডার নির্বাচনে ভারত চীন ও পাকিস্তানের হস্তক্ষেপের অভিযোগ