বার্ধক্যে যৌবনের যে ২০টি বিষয় নিয়ে আফসোস হবে

অথর
নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :১৯ জুলাই ২০২১, ৭:৪৮ পূর্বাহ্ণ
বার্ধক্যে যৌবনের যে ২০টি বিষয় নিয়ে আফসোস হবে

জন্ম-মৃত্যুর মতো বার্ধক্যও আমাদের জীবনের অংশ। যদিও যৌবনে আমরা এই বিষয়ে বড় একটা ভাবি না, জীবনের শেষ বয়সটার জন্যে তেমন কোনো প্রস্তুতিও রাখি না। ফলে অসংখ্য মানুষের বার্ধক্য কেটে যায় আফসোস আর অনুশোচনায়। যৌবনে এটা করতে ভালো হতো, যৌবনে সেটা করলে ভালো হতো- ইত্যাদি ভাবনা ভাবতেই চলে যায় দিনগুলো। অথচ আজ যদি একটু সচেতন হওয়া যায়, তাহলে পরিহার করা যায় এইসব আফসোস আর শেষ বয়সটিকে বরণ করা যায় নিজের মতো করে।

আপনিও কি ঠিক তাই চান? তাহলে পড়ে নিতে পারেন এই ফিচারটি। জেনে নিতে পারেন যৌবনের কোন কোন ভুলগুলো নিয়ে আফসোস হতে পারে শেষ বয়সে। আর পরিবর্তন আনতে পারেন নিজের জীবনে।

১। প্রিয়জনের মনে কষ্ট দেওয়া, কষ্ট দিয়ে তাদেরকে দূরে ঠেলে দেওয়া।

২। সুযোগ পেয়েও ভ্রমণ না করা।

৩। সঠিক সময়ে স্বাস্থ্য সচেতন না হওয়া।

৪। ত্বকের যত্নে, চেহারার যত্নে মনযোগী না হওয়া।

৫। দাঁতকে গুরুত্ব না দেওয়া, নিয়মিত দাঁতের যত্ন না করা।

৬। পর্যাপ্ত পরিমাণে ব্যায়াম না করা, যা দেহমনের জন্যে অত্যন্ত জরুরি।

৭। নিজের কর্মক্ষমতার চাইতেও অনেক বেশি পরিশ্রম করা। এমন পরিশ্রম যাতে জীবনীশক্তি ক্ষয় হয়ে যায় এবং যে পরিশ্রম থেকে কোনো ফলাফল মেলে না।

৮। দীর্ঘদিন মনের মাঝে ঘৃণা পুষে রাখা।

৯। আলস্যে জীবন পার করে দেওয়া, কোনো অর্জনের চেষ্টা না করা।

১০। পরিবারকে যথেষ্ট সময় না দেওয়া, তাদেরকে অবহেলা করা।

১১। টাকা খরচে ভয় পাওয়া, সামর্থ্য থাকা সত্ত্বেও জীবন কৃপণের মতো কাটিয়ে দেওয়া।

১২। জীবনসঙ্গীর সঙ্গে মধুর সম্পর্ক গড়ে তুলতে না পারা, এটা ভুলে যাওয়া যে শেষ জীবনে স্বামী বা স্ত্রী-ই হবেন সবচাইতে ঘনিষ্ঠ সঙ্গী।

১৩। সন্তানদেরকে পর্যাপ্ত সময় ও আদর্শের শিক্ষা না দেওয়া, তাদেরকে যোগ্য মানুষ হিসেবে গড়ে না তোলা।

১৪। ভালো ও সৎ বন্ধুদের সঙ্গে সম্পর্ক ধরে না রাখা।

১৫। পরিবর্তনকে ভয় পাওয়া ও এড়িয়ে যাওয়া।

১৬। ভবিষ্যৎ নিয়ে অতিরিক্ত চিন্তা করতে গিয়ে বর্তমানকে উপভোগ না করা।

১৭। সঞ্চয় না করা।

১৮। অন্যের কথাকে এত বেশি গুরুত্ব দেওয়া যে নিজের জীবন বাঁচতেই ভুলে যাওয়া।

১৯। জীবনের সুন্দর দিকগুলো উপভোগ না করে লোভ আর অহেতুক চাহিদাকে বেশি গুরুত্ব দেওয়া।

২০। নিজেকে নির্যাতিত হতে দেয়া। এমন একটি জীবন-যাপন চালিয়ে যাওয়া যেটা আপনি চান না।

একটিই জীবন, বাঁচুন সুন্দরভাবে। জীবনের প্রতি মুহূর্ত হয়ে উঠুক উপভোগ্য।

সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।