বস্তিতে ৩১, বাইরে ৫৯% প্রসব অস্ত্রোপচারে – U.S. Bangla News




বস্তিতে ৩১, বাইরে ৫৯% প্রসব অস্ত্রোপচারে

ইউ এস বাংলা নিউজ ডেক্স:-
আপডেটঃ ৪ জানুয়ারি, ২০২৩ | ১০:০৭
দেশের শহর অঞ্চলে অপ্রয়োজনীয় অস্ত্রোপচারের (সিজারিয়ান বা সি-সেকশন) মাধ্যমে শিশু জন্মের হার অনেক বেশি। মহানগরে বস্তির বাইরে থাকা জনগোষ্ঠীর ৫৯ দশমিক ৪ শতাংশ, বস্তির ৩১ দশমিক ৩ শতাংশ এবং অন্যান্য শহরে ৫০ দশমিক ৫ শতাংশ সন্তান প্রসব হচ্ছে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে। নগরের উচ্চবিত্তের পাশাপাশি এখন সন্তান প্রসবে সিজারের দিকে ঝুঁকছে বস্তিবাসীও। ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব পপুলেশন রিসার্চ অ্যান্ড ট্রেনিংয়ের (নিপোর্ট) গবেষণায় উঠে এসেছে এমন তথ্য। আজ মঙ্গলবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে নিপোর্টের দেশব্যাপী তৃতীয় বাংলাদেশ আরবান হেলথ সার্ভে-২০২১ (বিইউএইচএস)-এর ফলাফল প্রকাশ অনুষ্ঠানে এ তথ্য দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের অধ্যাপক সাঈদ সাহাদাত হোসেন। জরিপটি ১১টি সিটি করপোরেশনে বস্তি, বস্তিবহির্ভূত এবং

জেলা-পৌরসভা ও বড় শহরের (অন্তত ৪৫ হাজার বাসিন্দা) জনগোষ্ঠীর ওপর করা হয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সুপারিশ অনুযায়ী, একটি দেশে অস্ত্রোপচারে সন্তান প্রসবের হার ১০ থেকে ১৫ শতাংশ হওয়া উচিত। তবে বাংলাদেশে সেভ দ্য চিলড্রেনের ২০১৯ সালের হিসাব বলছে- এই হার ৫১ শতাংশ। সেই হিসাবে দেশে বিশ্বব্যাপী অনুমোদিত হারের চেয়ে তিন গুণেরও বেশি শিশুর জন্ম হচ্ছে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে। নিপোর্টের জরিপে উঠে এসেছে, অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় প্রাতিষ্ঠানিক চিকিৎসাসেবা নেওয়া নারীদের মধ্যে সিজারে সন্তান জন্মদানের হার বেশি। ঘরের বাইরে বিভিন্ন হাসপাতাল কিংবা স্বাস্থ্যসেবার আওতায় আসা অধিকাংশ শিশুর জন্মই হয়েছে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে। স্বাস্থ্যসেবা পাওয়া মহানগরের ৭৭ শতাংশ, অন্যান্য শহরে ৭৫ শতাংশ এবং মহানগরের বস্তির ৫৮ দশমিক ৩

শতাংশ নারী সিজারের মাধ্যমে সন্তান জন্ম দেন। সরকারি হাসপাতালের তুলনায় বেসরকারি ও এনজিওভিত্তিক হাসপাতালে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে সন্তান জন্মদানের হার বেশি। বেসরকারি হাসপাতালে সবচেয়ে বেশি ৮৩ শতাংশ প্রসবেই অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। এনজিওতে সিজারের হার ২৫ শতাংশ। এ বিষয়ে স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আনোয়ার হোসেন হাওলাদার বলেন, অন্তঃসত্ত্বা নারীদের প্রথম দিকে সেবা নেওয়ার হার কিছুটা আশা দেখালেও চতুর্থ ধাপ খুবই হতাশাজনক। করোনা মহামারিতে কম বয়সে গর্ভধারণ বেড়েছে এটা ঠিক, কিন্তু স্বাভাবিক সময়ে যে খুব একটা ভালো অবস্থা ছিল তা নয়। উপজেলা ও জেলা শহরে প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবার ক্ষেত্রে বড় একটি গ্যাপ রয়েছে। এর উন্নতি জরুরি। এ বিষয়ে আলাদা পরিকল্পনা করা হচ্ছে। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ

মালেক বলেন, অন্যান্য দেশের তুলনায় অপ্রয়োজনীয় অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে শিশু জন্মের হার অনেক বেশি। চিকিৎসার জন্য অন্তঃসত্ত্বারা বেসরকারি কোনো হাসপাতালে গেলেই তাদের সিজার করা হয়। সিজার হলেই অতিরিক্ত সুবিধা। বেসরকারি হাসপাতালগুলো সব সময় ব্যবসায়িক স্বার্থ লালন করে। তিনি আরও বলেন, আমাদের স্বাভাবিক ডেলিভারি আরও বাড়াতে হবে। তাহলে শিশু ও মাতৃমৃত্যু কমে যাবে। এজন্য ২৪ ঘণ্টা সেবাদানের ব্যবস্থা করতে হবে। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শাহান আরা বানু, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবির, স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদপ্তরের ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. টিটো মিঞা।
ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
ঘূর্ণিঝড় রিমালের সর্বশেষ অবস্থান জানাল আবহাওয়া অফিস ডিসি-ইউএনওর নতুন গাড়ি রাষ্ট্রীয় অর্থের অপচয় উপকূলীয় এলাকায় লঞ্চসহ সব নৌযান চলাচল বন্ধের নির্দেশ কক্সবাজার ও কলকাতাগামী বিমানের ফ্লাইট বন্ধ বারিধারায় শাহীনের আরেক ‘জলসাঘর’ কলকাতার খালে জাল ফেলেও মেলেনি লাশ ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা কোন ১৫ জেলায় ঘূর্ণিঝড় ঘিরে আতঙ্ক প্রবল শক্তিতে ধেয়ে আসছে রিমাল ভবন আছে জনবল নেই ভারতে গেমিং জোনে আগুন, শিশুসহ নিহত অন্তত ২৭ দেহ ৮০ টুকরো করতে ৫ হাজার টাকা পায় জিহাদ ঢাকার সড়কে রাতের দানব বেপরোয়া ট্রাক শেয়ারবাজারে আবারও হতাশার কালো মেঘ এমপি আনারের খুনের আগে রুপি আদায় চট্টগ্রাম বন্দরে অ্যালার্ট-৩ জারি, খালি করা হচ্ছে জেটি সংসার চালানোর খরচ আরও বাড়বে পচে যাচ্ছে গাজাবাসীর ত্রাণের খাবার ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ৫ ফুট উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসের শঙ্কা ব্যাটিং বিপর্যয়ে ইংল্যান্ডের মাঠে পাকিস্তানের হার মোস্তাফিজের রেকর্ড গড়া ম্যাচে ১০ উইকেটে জিতল বাংলাদেশ