পৃথিবীতে যতো টাকা আছে তারচে বেশি ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা

অথর
নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :২২ জুলাই ২০২১, ৮:৫৬ পূর্বাহ্ণ
পৃথিবীতে যতো টাকা আছে তারচে বেশি ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা

ঘটনা ছোট কিন্তু এতেই পুরো নগর কর্তৃপক্ষ থেকে শুরু করে এমন কোনো পক্ষ নেই মামলায় যাকে আসামি করেননি তিনি। সামান্য ঘটনায় ক্ষতিপূরণ দাবি করেছেন অবিশ্বাস্য! পৃথিবীতে যতো টাকা আছে তারচে বেশি টাকা ক্ষতিপূরণ চাই তাঁর।

দীর্ঘ ২২ পৃষ্ঠার অভিযোগ দায়ের করেছিলেন তিনি। সেখানে বিবাদীর মধ্যে ছিল- নগর কর্তৃপক্ষ, নিউইয়র্ক সিটির পরিবহন দপ্তর, একটি রুটির দোকান, স্থানীয় দুটি হাসপাতাল, কে-মার্ট, একটি কুকুরের মালিক, এক চীনা দম্পতি এবং আর যাকে যাকে এই ঘটনার জন্য দায়ী মনে করেছেন তাঁদের বিরুদ্ধে মামলা ঠুকে দিয়েছেন তিনি।

ঘটনাটি ছিল ২০১৪ সালের মে মাসের। যুক্তরাষ্ট্রের ম্যানহাটনে ফেডারেল আদালতে মামলাটি করা হয়েছিল। আর মামলায় ক্ষতিপূরণ দাবি করা হয়েছিল দুই আনডেসিলিয়ন ডলার। অর্থাৎ ২-এর পর ৩৬টি শূন্য বসালে অঙ্কটি যা দাঁড়ায় সেই পরিমান ক্ষতিপূরণ দাবি করেছিলেন তিনি।

খেপাটে এই আমেরিকানের নাম অ্যান্টন পিউরিজিমা। তখন বয়স ছিল ৬২ বছর। তাঁর আগে কোনো মামলায় এতো টাকা ক্ষতিপূরণ দাবির রেকর্ড কারও নেই।

তবে মামলায় বহু বিবাদীর বিরুদ্ধে অ্যান্টনের লিখিত অভিযোগটি বুঝেই উঠতে পারেননি বিচারক। জ্ঞানে না কুলানোয় শেষ পর্যন্ত বিচারক সেগুলো খারিজ করে দিয়েছেন।

অ্যান্টনের মূল অভিযোগটি হলো- একটি লোকাল বাসে জলাতঙ্ক আক্রান্ত কুকুর তাঁর মধ্যাঙ্গুল কামড়ে দিয়ে রক্তাক্ত করেছে। সেই আঙ্গুলের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। সেখানে এক চীনা দম্পতি বিনা অনুমতিতে তাঁর ছবি তুলেছে।

মামলার এজাহারে তিনি বলেছেন, কুকুরের কামড়ে তিনি যে পরিমাণ ব্যথা পেয়েছেন এবং তাঁর ক্ষতি হয়ে গেছে তা অপূরণীয়। সেই হিসাব করেই তিনি ক্ষতিপূরণের অঙ্কটি নির্ধারণ করেছেন। প্রমাণ হিসেবে আদালতে এক স্যুটকেস ভর্তি আলামত জমা দেন তিনি। সেখানে তাঁর সেই রক্তাক্ত আঙ্গুলের ছবিও ছিল।

সূত্র: নিউইয়র্ক পোস্ট

সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।