নাচোলে সরিষা চাষে আশার আলো দেখছেন চাষীরা – U.S. Bangla News




নাচোলে সরিষা চাষে আশার আলো দেখছেন চাষীরা

ইউ এস বাংলা নিউজ ডেক্স:-
আপডেটঃ ২৯ ডিসেম্বর, ২০২২ | ৭:২৫
চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলা। বরেন্দ্র অঞ্চল হিসাবে খ্যাত এই এলাকার বিস্তীর্ণ মাঠের যে দিকে চোখ যায় শুধু সরিষা ফুলের সমারোহ। সরিষা ফুলের হলদে রঙে রাঙিয়ে গন্ধে ভরে গেছে উঠেছে কৃষকের মাঠ।এসব ক্ষেতে ঝাঁকে ঝাঁকে মুখরিত মৌমাছির গুনগুন শব্দ। ভোজ্য তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি এবং আমদানী নির্ভর ভোজ্য তেলের ওপর নিভর্রশীলতা কমাতে কৃষি বিভাগের সার্বক্ষণিক পরামর্শ ও প্রণোদনায় নাচোল উপজেলার কৃষকরা আমন ক্ষেতে সরিষা চাষ করে আশার আলো দেখছেন। উপজেলা বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, বিস্তীর্ণ মাঠ জুড়ে সরিষার হলুদ ফুলের সমাহার। আমন ধান কাটার সঙ্গে সঙ্গে ওই জমিতেই সরিষা চাষ করছেন কৃষকরা। নাচোল উপজেলার নেজামপুর ইউপির পল্টনপুকুর এলাকার কৃষক সবুর উদ্দিন।তিনি সরকারি প্রণোদনায় নাচোল উপজেলা কৃষি

অফিস হতে সরিষার বীজ নিয়ে প্রায় ৪ বিঘা জমিতে বারি সরিষা-১৪ রোপণ করেছেন। বর্তমানে সরিষার হলুদ ফুলের সমারোহ দেখে তিনি আশার আলো দেখছেন। উপজেলার খেসবা গ্রামের সরিষা চাষী রফিক বলেন, তেলের দাম বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে সরিষার দামও বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। ফলে বাড়তি লাভের পাশাপাশি পরিবারে তেলের চাহিদা পুরণে সক্ষম হবেন কৃষকরা। তাই তিনি এবার গত বছরের তুলনায় দ্বিগুণ জমিতে সরিষা চাষ করেছেন। প্রতি বিঘাতে ৬/৭ মন সরিষার ফলন হতে পারে বলে তিনি আশাবাদী। কৃষি বিভাগ বলছে, খরচ ও চাষের সময় দুটোই কম হওয়ায় কৃষকের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে সরিষা চাষ। গত কয়েক বছরে নতুন নতুন জাত উদ্ভাবনের ফলে শস্যটির ফলনও

আগের চেয়ে বেড়েছে। ফলে উপজেলার এলাকার বিভিন্ন স্থানে দিন দিন বাড়ছে সরিষার চাষ। গত বছর নাচোল উপজেলায় ৫৩৯৫ হেক্টর জমিতে সরিষার আবাদ হয়েছিল, এবার তা বৃদ্ধি পেয়ে ৮১০০ হেক্টর জমিতে সরিষার চাষ হয়েছে বলে উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়। এদিকে ভোজ্যতেলের আমদানি নির্ভরতা কমাতে সরিষাকে বিকল্প হিসেবে দেখছে সরকার। এজন্য ফসলটির উৎপাদন বাড়াতে কৃষককে বীজসহ দেওয়া হচ্ছে পরামর্শ। ফসলের শ্রেণি বিন্যাসে পরিবর্তন এনে গতিশীল করা হচ্ছে সরিষার চাষ। নাচোল উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বুলবুল আহম্মেদ বলেন, সরিষা চাষে কৃষককে আগ্রহী করে তুলতে এবার নাচোল উপজেলার ৩ হাজার কৃষককে এক কেজি করে সরিষার বীজ প্রণোদনা দেয়া হয়েছে। কৃষি অফিস মাঠ পর্যায়ে কর্মীরা ফসলের সার্বক্ষণিক

তদারকি করছে। আবাহাওয়া পরিস্থতির বিপর্যয় না ঘটলে কৃষকরা সরিষা চাষে লাভবান হবেন।
ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
ইসরাইলকে রাফায় হামলা বন্ধের নির্দেশ আইসিজের এমপি আনারের খণ্ডিত লাশ নিয়ে যেভাবে বের হন খুনিরা এমপি আনার হত্যা: ১২ দিনের রিমান্ডে কসাই জিহাদ আজিজ ও বেনজীরের দুর্নীতির দায় সরকার এড়াতে পারে না: দুদু সৌদি আরবে পৌঁছেছেন প্রায় ৩৯ হাজার হজযাত্রী এমপির ছেলে এমপি হোক সেটা আমি চাই না: ব্যারিস্টার সুমন নেতাহিয়াহুর গ্রেপ্তারি পরোয়ানায় সমর্থন রয়েছে বাংলাদেশের: পররাষ্ট্রমন্ত্রী অপরাধী হলে সরকার শাস্তি দেবে, প্রটেকশন নয়: ওবায়দুল কাদের ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে যে ১৪৩ দেশ স্বীকৃতি দিয়েছে শাহীনের ফ্ল্যাটে নিয়মিত যেতেন শিলাস্তি, স্বপ্ন ছিল মডেন হবার উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন, পুড়ে ছাই ২৩০টি ঘর রাজনীতিতে আসার ইঙ্গিত দিলেন আনারকন্যা শান্তিনগরে বহুতল ভবনে আগুন হুন্ডি ও সোনা চোরাচালানের টাকার ভাগ নিয়ে ‘দ্বন্দ্বে খুন’ এমপি আজিম বিদেশি বন্ধুরা ক্ষমতায় বসাবেন, বিএনপির সে স্বপ্নও এখন শেষ: ফখরুলকে কাদের এমপি আজিম হত্যা: আদালতে ৩ আসামি, ১০ দিনের রিমান্ড চাইবে ডিবি ইংল্যান্ডের বিপক্ষে যেমন একাদশ নিয়ে মাঠে নামছে পাকিস্তান ‘বেনজীর-আজিজ কাউকে বাঁচাতে যাবে না সরকার’ সমর্থন নিয়ে দ্বন্দ্ব, বাবার বিরুদ্ধে মেয়ের সংবাদ সম্মেলন বিশ্বকাপে বিশেষ ভূমিকায় শহীদ আফ্রিদি