নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষ্যে চাঁদাবাজির ধুম – U.S. Bangla News




নববর্ষ উদযাপন উপলক্ষ্যে চাঁদাবাজির ধুম

ইউ এস বাংলা নিউজ ডেক্স:-
আপডেটঃ ৩১ ডিসেম্বর, ২০২২ | ১০:০১
ইংরেজি নতুন বছরের প্রথম দিন করতে হবে পিকনিক ও নববর্ষ উদযাপন। নগরজুড়ে চলছে হৈ-হুল্লোড় আর আড্ডার প্রস্তুতি। বছরের প্রথমদিন হবে বিশেষ খাওয়া দাওয়া ও আনন্দানুষ্ঠান। বক্সে গান বাজানো ও ঢোল বাদ্য সহযোগে উল্লাস ও সঙ্গে বিশেষ পিকনিক। রাজশাহী মহানগরীর মহল্লায় মহল্লায় চলছে নতুন বছরের পিকনিকের আয়োজন। প্রতিটি মহল্লায় নতুন বছরে পিকনিক তথা বাহারি ভোজের আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে গত এক সপ্তাহ ধরে। চলছে প্যান্ডেল তৈরির কাজও। নতুন বছরে এই পিকনিক যেন অনিবার্য সংস্কৃতিতে পরিণত হয়েছে যুবক তরুণ কিশোরদের কাছে। তবে এই পিকনিকের পুরো আয়োজনটাই হচ্ছে চাঁদাবাজির টাকায়। নেপথ্যে থাকছেন পাড়া মহল্লার তথাকথিত বড় ভায়েরা। কোথাও বা ক্ষমতাসীন দলের ওয়ার্ড বা থানা

কমিটির নেতারা আছেন পৃষ্ঠপোষকতায়। কোথাও আছেন ছাত্রলীগ, যুবলীগ, সৈনিক লীগ, প্রজন্ম লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, তাঁতী লীগ, মৎস্যজীবী লীগ কিংবা আওয়ামী লীগ নেতারা। মূলত তাদের সামনে রেখে যেন নগরজুড়ে চাঁদাবাজির ধুম পড়েছে। রাজশাহী মহানগরীর দড়িখড়বোনা এলাকায় রয়েছে এক বিশিষ্ট ঠিকাদারের ব্যবসায়িক চেম্বার। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মালিক নগর যুবলীগের এই নেতা নাম প্রকাশ না করে বলেন, যেন চাঁদাবাজির উত্সব শুরু হয়েছে নগরীতে। চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ এই নেতা বলেন, কতজনকে চাঁদা দেওয়া সম্ভব! তিনি বিরক্ত হয়ে গত চারদিন ধরে চেম্বারে বসছেন না। চাঁদাবাজদের দাবি ইংরেজি নতুন বছরের পিকনিকের জন্য তাদেরকে চাঁদা দিতে হবে। আশপাশের তরুণ যুবকদের কয়েকজনকে দিয়েছেন। কিন্তু নগরীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে পিকনিকের চাঁদা নিতে

ছুটে আসছে এক শ্রেণীর উঠতি যুবক তরুণ। এসেই বলছেন অমুক ভাই পাঠালেন। টাকা দেন। বছরের প্রথম দিন পিকনিক করব। এভাবে তথাকথিত পিকনিক সংস্কৃতি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে নগরজুড়ে। এদিকে নগরীর সাহেববাজার, নিউমার্কেট, আরডিএ মার্কেটসহ বিভিন্ন মার্কেটের ব্যবসায়ীদের অনেকেই অভিযোগ করেছেন নববর্ষের খানা পিনার অনুষ্ঠানের জন্য চাঁদা দিতে দিতে তারা সর্বস্বান্ত হচ্ছেন। দলে দলে চাঁদাবাজরা আসছেন। বলছেন তাদের পিকনিকের জন্য চাঁদা দিতে হবে। আরডিএ মার্কেটের তৈরি পোশাকের একটি ছোট্ট দোকান চালান সামিউল হক। তিনি বলেন, গত কয়েক দিনে সাতজনকে চাঁদা দিতে হয়েছে। পরিমাণ একশ থেকে তিনশ টাকা। ভয়ে গত বৃহস্পতিবার থেকে দোকান বন্ধ রাখতে বাধ্য হয়েছেন। তার মতো অনেকেই চাঁদাবাজদের ভয়ে

দোকান বন্ধ রেখে বাড়িতে বসে থাকছেন। চাঁদাবাজরা ফোন নম্বর সংগ্রহ করে চাঁদার জন্য ফোন দিচ্ছেন। চেনাজানা নয় তারপরও চাঁদাবাজরা বলছেন, বড়ভাই আপনি কোথায়? আপনার দোকানে গিয়েছিলাম। বন্ধ পেলাম। আপনার বাসাটা কোথায়। দেখা করব। আমাদের বছরের প্রথম দিন পিকনিক আছে। নগরীর আমচত্বর এলাকায় একটি মোবাইল ফোনের ব্যালান্স রিচার্জ ও নগদ-বিকাশের দোকান করেন একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী। নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলছিলেন, চাঁদাবাজদের ভয়ানক উপদ্রবের কথা। গত কয়েক দিন ধরে চাঁদাবাজরা তার দোকানে হানা দিচ্ছেন। দুই দলকে দুইশ করে দিয়েছেন। শুক্রবার দোকান বন্ধ রেখেছিলেন। চাঁদাবাজরা বাড়ির ঠিকানা সংগ্রহ করে চাঁদা নিতে হাজির হয়েছেন সেখানেও। তিনি ভয়ে দরজা খোলেননি। মিনিট বিশেক এদিক ওদিক

বাঁউচি মেরে শেষে তারা ফিরে যায়। নগরীর বিমান চত্বর এলাকায় সড়কের ধারে ফুচকার একটি ভ্রাম্যমাণ দোকান চালান এক নারী। গত কয়েক দিনে তিন দল চাঁদাবাজ তার দোকানে হানা দিয়েছে চাঁদার দাবিতে। ফুটপাথের ফুচকার দোকানটি তার একমাত্র সম্বল। দোকানের আয় দিয়ে পাঁচজনের সংসার চালান। চাঁদা দিলে থাকবে কয় টাকা। পরিবারকে খাওয়াবেন কী? চন্দ্রিমা থানার ছোটবন গ্রাম এলাকায় অংশীদারি ভিত্তিতে একটি আবাসিক ভবন নির্মাণ করছেন কয়েক ব্যক্তি। গত ২৯ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় চারটি মোটরসাইকেলে হাজির একদল যুবক। সাইট ম্যানেজারের কাছে ৫ হাজার টাকা চাঁদা চেয়ে তাগাদা দিয়ে গেছে একদল যুবক। শনিবার বিকাল ৫টার মধ্যে পিকনিকের জন্য ৫ হাজার টাকা রাখতে বলে গেছে তারা। টাকা

না দিলে ইট-পাথর-সিমেন্ট কিছুই থাকবে না বলেও হুমকি দিয়ে গেছে। তবে তার আগেই সাইট বন্ধ রেখে বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে শ্রমিকদের। ম্যানেজারও ফোন বন্ধ করে দেশের বাড়ি গেছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন প্রোপার্টি ডেভেলপার বলেন, যেখানেই নতুন ভবনের কাজ হচ্ছে, সেখানেই হানা দিচ্ছে কিশোর তরুণদের দল। তাদের দাবি, নববর্ষের অনুষ্ঠান ও পিকনিকের জন্য চাঁদা দিতে হবে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাজশাহী মহানগর পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (এডিসি) রফিকুল আলম বলেন, এখনো এ বিষয়ে আমাদের কাছে কেউ অভিযোগ করেননি। ভুক্তভোগী কারো কাছ থেকে অভিযোগ না পেলে চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব নয়। অভিযোগ পেলে অবশ্যই আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
কোটা আন্দোলনে রেসিডেন্সিয়াল কলেজ শিক্ষার্থী ফারহান নিহত বাইডেনকে সরে দাঁড়ানোর জন্য চাপ শুমার, পেলোসির সংঘাত ও সহিংসতা কাম্য নয়: চীনা রাষ্ট্রদূত শিক্ষার্থীদের দাবি যৌক্তিক, আলোচনায় সমাধান মিলবে: আরেফিন সিদ্দিক স্বামী অন্য নারীর সঙ্গী, বিচ্ছেদের ঘোষণা দিলেন দুবাইয়ের রাজকুমারী এবার কোটা আন্দোলন নিয়ে সরব মেহজাবীন, যা বললেন মাদারীপুরে ত্রিমুখী সংঘর্ষে লেকের পানিতে পড়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু ২১, ২৩ ও ২৫ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা স্থগিত শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে পাশে দাঁড়ালেন কলকাতার নায়িকা সোহেল-নিরব-টুকুসহ বিএনপির ৫০০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে পুলিশের মামলা ছাত্র আন্দোলনের প্রতি পূর্ণ সমর্থন জামায়াতের বিএনপির কার্যালয়ে ফের ঝুলছে তালা, সতর্ক অবস্থানে পুলিশ আন্দোলনত শিক্ষার্থীরা মুক্তির সন্তান, স্বপ্নের বিপ্লব গড়ে তুলছে: রিজভী শিক্ষার্থীদের পরিবর্তে আজ মাঠে নেমেছে বিএনপি-জামায়াত: কাদের ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ নিয়ে যা বললেন ওবায়দুল কাদের যুক্তরাষ্ট্র আ.লীগ সভাপতি ড. সিদ্দিকের বাংলাদেশ গমন : ডা:মাসুদ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আজ সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ দুবাইয়ের রাজকন্যা হয়েও যে কারণে স্বামীকে তালাক দিলেন শেখা মাহরা শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে বেআইনি শক্তি প্রয়োগ করা হয়েছে হানিফ ফ্লাইওভারে গুলিবিদ্ধ হয়ে একজন নিহত