ধলেশ্বরীতে যাত্রীবাহী ট্রলারডুবি ॥ নিখোঁজ ৮

অথর
নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :৬ জানুয়ারি ২০২২, ১২:২০ পূর্বাহ্ণ
ধলেশ্বরীতে যাত্রীবাহী ট্রলারডুবি ॥ নিখোঁজ ৮

ফতুল্লার ধর্মগঞ্জে ধলেশ্বরী নদীতে ঢাকা থেকে বরিশালগামী লঞ্চের ধাক্কায় একটি যাত্রীবাহী ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটেছে। এতে কমপক্ষে ৮ জন নিখোঁজ রয়েছে। নিখোঁজদের মধ্যে একই পরিবারের ৪ জন রয়েছে। তাদের উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিসের তল্লাশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে। বুধবার সকাল সাড়ে ৮টায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিখোঁজরা হলেন-মনির, মোতালিব, আব্দুল্লাহ, মলি, জিয়াসমিন আক্তার, তার মেয়ে তাসমিম, তার ছেলে তামিম খান ও ১৪ মাসের মেয়ে তাসফিয়া।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস এ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফিন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ট্রলারটি যাত্রী বোঝাই করে বক্তাবলীর প্রতাপনগর খেয়াঘাট থেকে ধর্মগঞ্জ খেয়াঘাটের উদ্দেশে যাচ্ছিল। সকালে ঘন কুয়াশার কারণে ট্রলারটি স্পষ্ট দেখা না যাওয়ায় এম ভি সোবহান নামে একটি যাত্রীবাহী লঞ্চের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। সঙ্গে সঙ্গেই ট্রলারটি নদীতে তলিয়ে যায়। অধিকাংশ যাত্রী সাঁতার কেটে তীরে উঠতে সক্ষম হলেও ৮ জন নিখোঁজ হন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে তল্লাশি শুরু করে। তবে সন্ধ্যা পর্যন্ত নিখোঁজ কাউকে উদ্ধার বা ডুবে যাওয়া ট্রলারের অবস্থান শনাক্ত করা যায়নি। খবর পেয়ে নৌ পুলিশ, কোস্টগার্ড, বিআইডব্লিটিএ, ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিদলসহ অন্যান সংস্থা প্রতিনিধিরা কাজ করছে। খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ, নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী রিফাত ফেরদৌস, নৌ-পুলিশের এসপি মিনা মাহমুদ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

বক্তাবলী নৌ-পুলিশের ইন্সপেক্টর জিয়াউল মোরশেদ জানান, দুর্ঘটনার জন্য দায়ী লঞ্চটিকে শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে। লঞ্চটি শনাক্ত করা হলেই এর চালকসহ সংশ্লিষ্টদের আইনের আওতায় আনা হবে। তিনি বলেন, ডুবে যাওয়া নৌকাটি শনাক্তের জন্য সবাই যৌথভাবে কাজ করছে। তিনি বলেন, সন্ধ্যা পর্যন্ত এখনও নিখোঁজদের খোঁজ মেলেনি। যাত্রীদের মধ্যে অধিকাংশই ছিলেন গার্মেন্টস কর্মী।

সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।