চনপাড়ায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ ৩ – U.S. Bangla News




চনপাড়ায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ ৩

ইউ এস বাংলা নিউজ ডেক্স:-
আপডেটঃ ১২ এপ্রিল, ২০২৩ | ৪:১৪
নারায়ণগঞ্জের রুপগঞ্জের চনপাড়ায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দফা দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে তিনজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন বলে জানা গেছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে বুধবার সকাল পর্যন্ত এ সংঘর্ষ চলে। গুলিবিদ্ধরা হলেন- সানি, সম্রাট পারভেজ ও রোমান। তারা বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানান হাসপাতালের পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ বাচ্চু মিয়া। তিনি বলেন, তিনজনেরই পায়ে গুলি লেগেছে। এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, চনপাড়া নিয়ন্ত্রণ করতো বজলু-শাহীন গ্রুপ। সম্প্রতি শাহীন র‍্যাবের ক্রসফায়ারে নিহত হন। বজলু র‍্যাবের উপর হামলার মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে জেলে যান। গত ৩১ মার্চ তিনি হার্ট অ্যাটাকে মারা যান। বজলু মেম্বার জেলে যাওয়ায় চনপাড়ার নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার চেষ্টা করেন শাহাবুদ্দিন ও শমসের বাহিনী।

বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি জয়নাল বাহিনীর লোকজন। সম্প্রতি বজলু বাহিনীর বেশ কিছু সদস্য জয়নালের সঙ্গে যোগ দেয়। মঙ্গলবার রাতে শাহাবউদ্দিন ও শমসের বাহিনী একত্রিত হয়ে জয়নাল আবেদীনের বাহিনীর ওপর হামলা চালায়। ইফতারের পর এ হামলার ঘটনা ঘটে। পাল্টা জবাবও দেয় জয়নাল গ্রুপ। মধ্য রাত পর্যন্ত চলে এ পাল্টাপাল্টি সংঘর্ষ। হামলায় তিনজন গুলিবিদ্ধ হন। তারা সবাই জয়নালের সহযোগী। জয়নাল একটি হত্যা মামলায় গত বছরের জুনে গ্রেপ্তার হন। তিনি সম্প্রতি জামিনে মুক্ত হন। সংঘর্ষের বিষয়ে জানতে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এএফএম সায়েদ এর নাম্বারে একাধিকবার কল করলেও তিনি তা রিসিভ করেননি। বার্তা পাঠালেও উত্তর দেননি। তবে জেলা পুলিশের সহকারী পুলিশ

সুপার (রূপগঞ্জ-আড়াইহাজার সার্কেল) আবির হোসেন বলেন, ‘জয়নাল জামিনে সম্প্রতি মুক্ত হয়েছেন। আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শমসের ও শাহাবউদ্দিন গ্রুপের সঙ্গে জয়নাল গ্রুপের সংঘর্ষ হয়। উভয়পক্ষের কয়েকজন আহত হয়। তিনজন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানা গেছে। তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে এখনো কোনো মামলা হয়নি।
ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
ফায়ার সেফটির বালাই নেই নামিদামি রেস্টুরেন্টে রাবির ভর্তি পরীক্ষা, আবাসন-চিকিৎসাসহ নানা পদক্ষেপ ভয়াবহ দাবানল টেক্সাসে বিশ্বের ১০০ কোটিরও বেশি মানুষ স্থূলতায় আক্রান্ত কংগ্রেসে ইসরাইলের ‘আত্মরক্ষা বিল’ চান বাইডেন! ইরানে ভোটগ্রহণ, শেষে এগিয়ে রক্ষণশীলরা টেলিটকের এমডিসহ সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা মালয়েশিয়ায় বসছে আন্তর্জাতিক মুসলিম নারী সম্মেলনের আসর মালয়েশিয়া থেকে অবৈধ প্রবাসীদের দেশে ফেরার সুযোগ পল্লবীতে ইন্টারনেট অফিসে ককটেল বিস্ফোরণ, ১ জন আটক মিঠে কড়া সংলাপ বাজার ঠিক করাই এখন প্রথম দায়িত্ব ৬ বছরের প্রেম, বাংলাদেশি রিয়াজের সঙ্গে মালয়েশিয়ান তরুণীর বিয়ে একাই দাফন করেছেন ১৭ হাজার লাশ! সাড়ে ৩ কোটি টাকা হাতানোর অভিযোগ নিয়ে সিএমপিতে তোলপাড় অগ্নিকুণ্ডের ওপর ঢাকার মানুষ স্বাধীন দেশের বার্তা নিয়ে উড়ল মানচিত্র খচিত পতাকা আরও ৩-৪ বার বাড়বে বিদ্যুতের দাম অবহেলায় অন্তহীন খেসারত ১৩ দিনে আগে বিদায়, তবুও তারা নিলেন বিপিএলের সেরার পুরস্কার পশ্চিমবঙ্গে প্রথম নির্বাচনি প্রচারে যা বললেন মোদি