করোনায় ধূমপায়ী কমেছে

অথর
নিজস্ব প্রতিবেদক   বাংলাদেশ
প্রকাশিত :২৯ মার্চ ২০২১, ৮:৫৫ পূর্বাহ্ণ
করোনায় ধূমপায়ী কমেছে

করোনা মহামারীতে বিশ্বব্যাপী ধূমপায়ীর সংখ্যা উল্লেখযোগ্য হারে হ্রাস পেয়েছে। শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই কয়েক কোটি নারী-পুরুষ ধূমপান ছেড়ে দিয়েছে যা এক দশকের মধ্যে সর্বোচ্চ। ২০২০ সালের প্রথম প্রান্তিকে দেশটির লোকজনের মধ্যে সিগারেট ছাড়ার হিড়িক পড়ে। লকডাউন, করোনার ভয়ে ঘরের মধ্যে থাকা ও অর্থনৈতিক সঙ্কটে অনেক মার্কিনী সিগারেট ছাড়তে বাধ্য হন। মিনেসোটার ধূমপানবিরোধী আন্দোলনের নেতা জঁ ক্যাশ বলেন, সিগারেট ছাড়ার খবর আশাপ্রদ। অনেক তরুণ এখন সিগারেট ছেড়ে অন্যান্য কাজে মন দিয়েছে। যত্রতত্র এখন সিগারেটের ফিল্টার পড়ে থাকতে দেখা যায় না। হার্ভার্ড মেডিক্যাল স্কুলের শিক্ষক ডক্টর ন্যান্সি রিগোটি বলেন, এখন অনেক তরুণ-তরুণী আর সিগারেটে উৎসাহ পাচ্ছে না। এ খবর উৎসাহব্যঞ্জক। মার্কিন জনসচেতনতা দফতর বলেছে, করোনায় মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি ও একে অন্যের বেশি মেলামেশা করতে না পারায় ধূমপান কমেছে। আবার এর সঙ্গে আর্থিক সমস্যার বিষয়টিও জড়িত। উল্লেখ্য, বলা হয় সিগারেট পানে মানুষের ফুসফুস মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয়। করোনায় মৃত্যুর সঙ্গে ফুসফুস বিকল হওয়ার সম্পর্ক রয়েছে। তাই ফুসফুস সচল রাখতে অনেকে ধূমপান ছাড়তে পারেন বলে মার্কিন স্বাস্থ্য দফতর মনে করছে।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন বিশ্বের ২১৮টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯। আক্রান্তের সংখ্যায় যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলের পরেই আছে ভারত। আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ স্থানে রয়েছে রাশিয়া। আক্রান্ত ও মৃত্যুর হিসেবে ফ্রান্স রয়েছে পঞ্চম স্থানে। আক্রান্তের তালিকায় যুক্তরাজ্য ষষ্ঠ, ইতালি সপ্তম, স্পেন অষ্টম, তুরস্ক নবম এবং জার্মানি দশম স্থানে আছে।

বিশ্বজুড়ে করোনা সংক্রমণ উল্লেখ্যযোগ্য হারে বাড়ছে। গত এক মাস সংক্রমণ বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। সাত দিনে এ রোগে আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ৩৫ লাখ মানুষ। একই সময়ে মারা গেছে ৬২ হাজারের বেশি।

সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

শেয়ার করে আমাদের সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়।