আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের বিরোধে মুন্সীগঞ্জে যুবককে পিটিয়ে হত্যা – U.S. Bangla News




আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের বিরোধে মুন্সীগঞ্জে যুবককে পিটিয়ে হত্যা

ইউ এস বাংলা নিউজ ডেক্স:-
আপডেটঃ ১৫ মার্চ, ২০২৩ | ৯:৩০
আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের বিরোধকে কেন্দ্র করে মুন্সীগঞ্জে প্রতিপক্ষের এলোপাথারি পিটানোর কারনে তুহিন (২২) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন।মঙ্গলবার (১৪ মার্চ) সকাল ১০টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকার একটি হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। এর আগে সোমবার (১৩ মার্চ) বিকেল ৫টার দিকে টঙ্গীবাড়ী উপজেলার পুরা এলাকায় এ মারধরের ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় প্রথমে তাকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল ও পরে ঢাকার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। নিহত তুহিন সদর উপজেলার মোল্লাকান্দি ইউনিয়নের আলমগীর সরকারের ছেলে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলার মোল্লাকান্দি ইউনিয়নে আধিপত্যকে কেন্দ্র করে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান রিপন পাটোয়ারী ও সাবেক চেয়ারম্যান মহসিনা

হক কল্পনার কর্মীদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। নিহত তুহিন রিপন পাটোয়ারীর সমর্থক ছিলেন। সোমবার পুরা ডিসি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে যান তুহিন। সেখানে কল্পনার পক্ষের লোকজন তাকে তুলে নিয়ে পেছনের একটি বাগানে নিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর আহত করে ফেলে রেখে যান। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে অবস্থা গুরুতর দেখে চিকিৎসক তাকে ঢাকায় রেফার্ড করেন। মঙ্গলবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু তার হয়। এ বিষয়ে বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান রিপন পাটোয়ারী বলেন, তুহিন আমার দলের সমর্থক ছিলো। এ কারণেই সাবেক চেয়ারম্যান মহসিনা হক কল্পনার পক্ষের লোকজন বাবু কাজী, জিয়া সরকার, সৈকত

দেওয়ান, আজহার মোল্লার নেতৃত্বে আরো সন্ত্রাসীরা সোমবার তুহিনকে ধরে নিয়ে গিয়ে এলোপাথারি পিটিয়ে ফেলে রেখে যায়। মঙ্গলবার হাসপাতালে চিকিৎসাধিন অবস্থায় ওর মৃত্যু হয়েছে। আমরা এর উপযুক্ত বিচার চাই। এদিকে এসব অভিযোগের বিষয়ে নিজের লোকজনের জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করে সাবেক চেয়ারম্যান মহসিনা হক কল্পনা বলেন, ওই যুবক উগ্র ছিল। সে অস্ত্র নিয়ে চলাফেরা করতো। শুনেছি কনসার্টের অনুষ্ঠানে গিয়ে সে ঝামেলা করেছে। তখন কংশপুরা এলাকার কিছু ছেলে তাকে পিটিয়েছে। ছেলেটির মাথায় আঘাত ছিল। সেই আঘাতের কারণেই তার মৃত্যু হয়েছে। সে গত নির্বাচনে রিপনের নির্বাচন করেছে। কিন্তু একটা ছেলে মারা যাক এটা আমি চাই না। আমার লোক জড়িত ছিল না। যারা জড়িত তাদের বিচার

হোক। মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক কামাল প্রধান জানান, সোমবার রাত ৯টার দিকে গুরুতর আহত অবস্থায় তুহিন নামের ওই যুবককে হাসপাতালে আনা হয়। আহতের শরীরে মারপিটের চিহ্ন ছিল। অবস্থা আশংকাজনক দেখে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। মঙ্গলবার বিকেলে টঙ্গীবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রাজিব খান এসব তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পিটানোর কারণে যুবকের মৃত্যুর কথাটি শুনেছি। নিহতের লাশ ময়নাতদন্ত ও মামলার ভিত্তিতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হয়। এ ঘটনায় জড়িতদের বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।
ট্যাগ:

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:


শীর্ষ সংবাদ:
ফায়ার সেফটির বালাই নেই নামিদামি রেস্টুরেন্টে রাবির ভর্তি পরীক্ষা, আবাসন-চিকিৎসাসহ নানা পদক্ষেপ ভয়াবহ দাবানল টেক্সাসে বিশ্বের ১০০ কোটিরও বেশি মানুষ স্থূলতায় আক্রান্ত কংগ্রেসে ইসরাইলের ‘আত্মরক্ষা বিল’ চান বাইডেন! ইরানে ভোটগ্রহণ, শেষে এগিয়ে রক্ষণশীলরা টেলিটকের এমডিসহ সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা মালয়েশিয়ায় বসছে আন্তর্জাতিক মুসলিম নারী সম্মেলনের আসর মালয়েশিয়া থেকে অবৈধ প্রবাসীদের দেশে ফেরার সুযোগ পল্লবীতে ইন্টারনেট অফিসে ককটেল বিস্ফোরণ, ১ জন আটক মিঠে কড়া সংলাপ বাজার ঠিক করাই এখন প্রথম দায়িত্ব ৬ বছরের প্রেম, বাংলাদেশি রিয়াজের সঙ্গে মালয়েশিয়ান তরুণীর বিয়ে একাই দাফন করেছেন ১৭ হাজার লাশ! সাড়ে ৩ কোটি টাকা হাতানোর অভিযোগ নিয়ে সিএমপিতে তোলপাড় অগ্নিকুণ্ডের ওপর ঢাকার মানুষ স্বাধীন দেশের বার্তা নিয়ে উড়ল মানচিত্র খচিত পতাকা আরও ৩-৪ বার বাড়বে বিদ্যুতের দাম অবহেলায় অন্তহীন খেসারত ১৩ দিনে আগে বিদায়, তবুও তারা নিলেন বিপিএলের সেরার পুরস্কার পশ্চিমবঙ্গে প্রথম নির্বাচনি প্রচারে যা বললেন মোদি